আলহামদুলিল্লাহ , সুবহান আল্লাহ , মাস আল্লাহ আরও এমন কিছু আরবি ভাষা আছে।এগুলোর সঠিক ব্যাবহার ও তার অর্থঃ

প্রশ্নোত্তর শিক্ষা

আলহামদুলিল্লাহ , সুবহান আল্লাহ , মাস আল্লাহ আরও এমন কিছু আরবি ভাষা আছে।এগুলোর সঠিক ব্যাবহার

❖১. কোনো কিছু আরম্ভ করার পূর্বেঃ বিসমিল্লাহ্।

❖২. কোনো কিছু করার উদ্দেশ্যঃ ইনশাআল্লাহ্।

❖৩. কোনো বিস্ময়কর বিষয় দেখলেঃ সুবাহানাল্লাহ্।

❖৪. কষ্টে ও যন্ত্রণায়ঃ ইয়া আল্লাহ্।

❖৫. প্রশংসার বহিঃপ্রকাশঃ মাশাআল্লাহ্।

❖৬.ধন্যবাদ জ্ঞাপনেঃ যাজাকাল্লাহ।

❖৭. ঘুম থেকে জাগ্রত হবার পরঃ লা-ইলাহা- ইল্লাল্লাহ।

❖৮. শপথ নেয়ার সময়ঃ ওয়াল্লাহি বিল্লাহ।

❖৯. হাঁচি দেয়ার পরঃ আলহামদু লিল্লাহ্।

❖১০. অন্য কেউ হাঁচি দিলেঃ ইয়ার হামুকাল্লাহ্।

❖১১. জিজ্ঞাসার জবাবেঃ আলহামদু লিল্লাহ্।

❖১২. পাপের অনুশোচনায়ঃ আসতাগফিরুল্লাহ্।

❖১৩. পরপোকার করার সময়ঃ ফি সাবিলিল্লাহ্।

❖১৪. কাউকে ভালোবাসলেঃ লিহুব্বিল্লাহ্।

❖১৫. বিদায়ের সময়ঃ ফিআমানিল্লাহ্।

❖১৬. সমস্যা দেখা দিলেঃ তাওয়াক্কালতু আলাল্লাহ…

অর্থঃ

◆ আস্তাগফেরুল্লাহ পড়তে হয় গুনাহ করলে বা কৃত গুনাহ থেকে ক্ষমা চাওয়ার জন্যে।এর অর্থ: আল্লাহ ক্ষমা করে দাও।

◆ নাউজুবিল্লাহ কোনো করার সম্ভাবনা হলে বা গুনাহ করার মুহূর্তে গুনাহ করা থেকে বাচার জন্য বলতে হয় অর্থ: আল্লাহ আমাদেরকে রক্ষা কর।
◆ আলাহামদুলিল্লাহু কোনো কাজে সাকসেস হলে বা আল্লাহর শুকর আদায়ের জন্য বলতে হয়, অর্থ: সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য।
◆ আল্লাহু আঁকবার আল্লাহরর বরত্ব প্রকাশ করার জন্য বলতে হয়, অর্থ: আল্লাহ মহান।
◆ সুবহানাল্লাহ আল্লাহর কুদরতের কথা শোনলে বা দেখলে বলতে হয়, অর্থ : সকল পবিত্রতা আল্লাহ তায়ালার জন্য।
◆ ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে কোনো কাজ করার ইচ্ছা হলে বলতে হয়, অর্থ: আল্লাহর ইচ্ছায় সব কিছু হয়।
◆ মাশাআল্লাহ কোনো ভালো কাজ দেখলে বলতে হয়, অর্থ: আল্লাহর ইচ্ছায়।
◆ জাজাকাল্লাহ খাইর কারো জন্য দোয়া করতে বলতে হয়, অর্থ: আল্লাহ তোমাকে উত্তম প্রতিদান দান করুক।

Share Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *